কখনো হার মানবে না

কখনো হার মানবে না

এই আলোচনাটি আপনাদের অনুপ্রাণিত করার জন্য। Lets go. আপনার পরিশ্রমই হলো আপনার পরিচয়। নাহলে একটা নামে তো হাজারো মানুষ আছে। এই পৃথিবীতে চারটে লোক একই দিশাতে তখনই যাবে। যখন ৫ নম্বর লোকটা তাদের কান্ধের উপর থাকবে পুরো জীবনটা আমরা একটা কথা ভেবেই কাটিয়ে দেই। যে চারটে লোক কি বলে? আর শেষ পর্যন্ত সেই চারটে লোক একটা কথাই বলে রাম-নাম-সাত্তিয়া। একটা বয়স পেরিয়ে গেলে সেই বয়সের কথা যেমন আবার মনে পড়ে। কিন্তু সেই বয়স আর কখনোই ফিরে আসে না। যে পানিতে ভিজবে তার শুধু শরীর ভিজবে। কিন্তু যে তার পরিশ্রমের ঘামে ভিজবে। তার জীবন বদলে যাবে। সূর্যের নাম তো এমনিতেই বদনাম হয়ে গেছে। কেননা একটা মানুষ তো আর একজনকে দেখেও কম জ্বলে যায় না। জানি না সেই শৈশব কালটা কোথায় চলে গেছে। যখন পানিতে আমাদেরও জাহাজ চলত। তোমার কাছেও এ রকম স্বপ্ন অবশ্যই হওয়া চাই। যেটা তোমাকে সকালে ওঠার জন্য আগ্রহী করে তুলবে। কাউকে যদি আপন বানাতে চাও। তাহলে মন থেকে বানাও। কথার মাধ্যমে না। কারণ সুঁচের মধ্যে তুমি সেই সুতোটাকেই প্রবেশ করাতে পারবে। যেটার মধ্যে কোন কাটা থকাবে না। জীবনে বিপদ আসা অত্যন্ত জরুরী। তার পরেই তো দেখা যায় কে সঙ্গ দেয়। আর কে সঙ্গ ছেড়ে দেয়। লাগে যাদের মনে ব্যথা বে রোয় না তাদের চোখ দিয়ে জল। যে আমার হতে পারে নি। পারবে না সে অন্য জনের হতে। বন্ধু কেউ একজন বলেছিল যখন বই রাস্তায় ধারে বিক্রি হবে এবং জুতো কাঁচের দোকানে তখন বুঝে নিও। মানুষের জ্ঞান নয় জুতোর দরকার। তোমার অবস্থা যতই খারাপ হোক না কেন তারপরেও তুমি লড়াই করে যাবে। সময় সঠিক এলে একটা তেতো আমও একটা মিষ্টি আমে পরিণত হবে। প্রথমে লোক শেখাতো যে সময়ে বদলে যায়। এখন সময় শিখিয়ে দেয় যে লোক বদলে যায়। যেটা হয়ে গেছে সেটাকে নিয়ে আর ভাবতে নেই। আর যেটা পেয়ে গেছো সেটাকে হারাতে নেই। জীবনে সেই আগে যেতে পারে যে সময় এবং পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে পারে। ধন্যবাদ।

Leave a Comment