প্রচেষ্টাই সাফল্য Effort Equals Success

প্রচেষ্টাই সাফল্য Effort Equals Success

তুমি জীবনে সফল হতে চাও। আর ‍তুমি এটাও জানো যে সফল হওয়ার জন্য যথেষ্ট প্রচেষ্টার দরকার। কিন্তু প্রশ্ন হলো তুমিই কি সেই যথেষ্ট প্রচেষ্টা করছো। আমি জানি তোমার মনে এখন হাজার রকম সমস্যার উদয় হতে পারে। প্রচেষ্টা না করার কারণ হিসেবে কিন্তু এটা কোনো বিশাল ব্যাপার নয়। বিশাল ব্যাপার হলো যদি তুমি আয়নার সামনে দাঁড়াও এবং নিজেকে সততার সাথে বলতে ‍পারো যে তুমি তোমার সর্বোচ্চটা দিয়েছো। কিন্তু যদি তবুও তোমার মনে হয় তুমি আরও বেশি দিতে পারো। তাহলে অবশ্যই দাও। কখনো নিজেকে মিথ্যা বলো না। বিজয়ীরা বিজয় লাভ করেন কারণ তারা তাদের সর্বোচ্চটা দেন। তারা নিজেদের কাছে সত্যটা বলেন যখন সবকিছু কঠিন হয়ে ওঠে তবুও তারা চলতে থাকেন। তারা যুদ্ধ ক্ষেত্রে টিকে থাকেন এবং কঠিন সংঘর্ষ চালিয়ে যান এবং পরবর্তী কালে তারা গর্বের সাথে মাথা উঁচু করে চলতে থাকেন। কারণ তারা সব সময় মনে রাখেন তাদের কঠিন সময়। যে সময়ে তাদের কাছে হাজার রকম কারণ ছিল ছেড়ে দেওয়ার। কিন্তু তারা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন হারকে মেমে নেওয়ার। আর এটাই হলো প্রকৃত প্রচেষ্টার উদাহরণ। আমরা সবাই প্রত্যেহ প্রচুর সমস্যার সমুক্খিন হই। কিন্তু এর মধ্যেও কেউ একজন এই সমস্যা থেকে বের হওয়ার রাস্তা তৈরি করে নেন। কোনো একজন সাহসী বীর যন্ত্রণার সহিত লড়াই চালিয়ে যান। সাফল্য কেউ কাউকে এনে দিতে পারে না। এটাকে অর্জন করে নিতে হয় এবং তার জন্য যোগ্য হতে হয়। তোমার কাছে সাফল্যের অর্থ ততটাই যতোটা তুমি চাইছো। কিন্তু যদি তুমি কখনোই আয়নার সামনে না দাঁড়াও এবং নিজেকে যোগ্য হিসাবে মানো তাহলে তুমি অবশ্যই সফল নও। অন্য কোন ব্যক্তি তোমার সফলতা নির্ধারণ করতে পারে না। কেবলমাত্র তুমিই পারো এবং তুমি পারো শুধুমাত্র নিজেকে একটা সাধারণ প্রশ্ন করে। সত্যি কি তুমি তোমার সর্বোচ্চ মাত্রার প্রচেষ্টা করছো। তুমিই জীবনে সবকিছুই অর্জন করতে পারো। কিন্তু এই সবকিছু আসে এই প্রচেষ্টার মাধ্যমে। এমনটা নয় যে সব সময় সময় তোমার অনুকূলে চলবে। কিন্তু যদি তুমি কখনো শক্ত ভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাও এবং নিজের কাছে নিশ্চিত থাকো যে তুমিই তোমার সর্বোচ্চ দিয়েছো। এটাই হলো তোমার সেরা পুরষ্কার। পুরষ্কার মানেই সব সময় তুমি যেটা চাইছো সেটা নয়। প্রকৃত পুরষ্কারই তো হলো তোমার চরিত্র। যেটা তুমি তৈরি করেছো তোমার প্রচেষ্টা দিয়ে। তোমার রক্ত এবং অশ্রু ঝরিয়ে দিনের পর দিন দুঃখ যন্ত্রণাকে হারিয়ে। নিজেকে উৎসর্গ করো একশো শতাংশই। দশমিক এক ভাগও ছাড় দিও না। সর্বদাই নিজের একশো ভাগ দাও। নিজের জীবনটাকে নিজের মতো করে বাঁচো কোনো রকম দুঃখ ছাড়াই। বিশ্রাম তুমি অবশ্যই নাও কখনো ছেড়ে দিও না। বিশ্রাম তুমি অবশ্যই নাও কিন্তু কখনো লক্ষ্যচ্যুত হয়োনা। বিশ্রাম তুমি অব্যশই নাও কিন্তু নিজের উদ্দীপনাকে জাগ্রত করাবার জন্য। বিশ্রাম তুমি অবশ্যই নাও কিন্তু শুধুমাত্র তোমার ভবিষ্যতের সাফল্যের পরিকল্পনা আবিষ্কারের জন্য। নিজেকে জোরালো ভাবে ঠেলতে থাকো তোমার ভবিষ্যতের দরাজার তোমার গন্তব্যস্থলের দিকে। এটা সম্পূর্ণ তোমার উপরে নির্ভর করছে। তুমিই কি তোমার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা করছো তুমি নিজেকে কখনো মিথ্যা বলতে পারো না। নিছক অযুহাত গুলো বাদ দিয়ে প্রচেষ্টার এক বিন্দুও বাকি রেখো না। কোন রকম দুঃখ নয়। প্রচেষ্টাই তোমাকে গর্বিত করে। প্রচেষ্টাই তোমাকে সম্মানিত করে। সাফল্যই হলো তোমার প্রচেষ্টা। তাই এখনই নির্ধারণ করো তোমার সাফল্য। অর্থাৎ তোমার প্রচেষ্টা।

Leave a Comment