বদলাও নিজেকে, শুধু নিজের চেহারাকে নয়

বদলাও নিজেকে, শুধু নিজের চেহারাকে নয়

হোয়াটস অ্যাপ স্টাটাস্স তো সবাই দিতে পারে। যদি দম থাকে তাহলে নিজের জীবনের একটা স্টাটাস দিয়ে দেখাও। আর জীবনে কোনোদিনও আশা করো না। শুধুই কঠিন পরিশ্রম করে যাও। কারণ জীবনে আশা করা ব্যক্তিদের থেকে কঠিন পরিশ্রম করা ব্যক্তিরা জয়ী হয়। আর যখন তোমার মনে হবে যে তুমি হেরে যাবে। তখন তোমার মায়ের কাছে যাবে। কারণ যখন কিছুই কাজে আসে না তখন তোমার মায়ের দোয়া কাজে আসবে। আমার অবস্থা দেখে তোরা হাসিস না। কারণ যতোবার তোরা চেষ্টাও করিস নি তার থেকে বেশি বার আমরা ব্যর্থ হয়েছি। আর নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছি। পৃথিবীতে শুধুমাত্র মনই আছে যে শুধুমাত্র আরাম ছাড়াই কাজ করে যায়। তাই মনকে সব সময় খুশি রাখো। সেটা নিজের হোক বা অন্য জনের। জীবনে সবথেকে দুঃখ তো তখন লাগে যখন কেউ মন না ভেঙে ভরসা ভেঙে দেয়। আর আমরা তার উপর ভরসা করেই মন দিয়ে থাকি। সেই জন্যে ভরসা তো করবেন কিন্তু সেটা সাবধানের সাথে। কারণ কখনো কখনো নিজের দাঁত নিজের জিবকে কেঁটে দেয়। জীবনে এতটাই ব্যস্থ থাকবে যে দুঃখ, কষ্ট, ভয় এদের জন্য কোন সময়ই না থাকে। মনে রাখবে জীবনে ব্যস্তহীন মানুষেই এগুলো উপভোগ করতে পারে। তোমার জীবনের যেকোন ভুলের জন্য তুমি দায়ী। এটাকে তুমি যতো তাড়াতাড়ি স্বীকার করবে তোমার জীবন ততোতাড়ি বদলে যাবে। যে তোমাকে দেখে হিংষা করে তাকে কোনো দিনও তুমি দেখে ঘৃণা করো না। কারণ এরা তো সেই লোক যারা তোমার থেকে নিজেদের জয়ী মনে করে। আলোচনা শেষে শুধু একটা কথাই বলবো কুড়ি বছর বয়সের ব্যক্তির চেহারা প্রগতির দিন থাকে। ত্রিশ বছর বয়সের ব্যক্তির চেহারা পরিশ্রমের দিন থাকে। কিন্তু পঞ্চাশ বছর বয়সের ব্যক্তির তার কর্মের ফল পায়। এর জন্য কোন সময় আশা ছেড়ো না। মনে রাখবে একটা রাতের পরেই কিন্তু সকাল হয়। লোক ভয় খেয়ে যায় পরিশ্রম দেখে। কিন্তু পরিশ্রম করার পর জীবনের পরিবর্তন আসে। তাই জীবনে পরিশ্রম করে যাও। তো আজকের আলোচনা এ পর্যন্তই। যদি আলোচনাটি তোমার ভিতরে একটু অনুপ্রাণিত করে থাকে তাহলে আলোচনাটিকে তোমার বন্ধুদের কাছে শেয়ার করে দাও। আরও এ রকম আলোচনা পেতে বিনাপানির সঙ্গে থাকুন। 

Leave a Comment