সকালের এই অভ্যাসগুলো তোমাকে সফল করবে

সকালের এই অভ্যাসগুলো তোমাকে সফল করবে

সকালে ওঠা মাত্রই কত টেনশন। আজকে গোটা দিনে কত কাজ করতে হবে। রানিং এর জন্য যেতে হবে কত লেট হয়ে গেলো। এটা করতে হবে ওটা করতে হবে। কত কাজ পড়ে আছে। সকালে ওঠা মাত্রই কখনো টেনশন নিবে না। দিনের হিসাবে কখনো শুরু করবে না। নিজের হিসাবে দিনটাকে শুরু করো। একটা গাড়ি তখনি ঠিক ভাবে চলে যখন তুমি প্রথম গিয়ার পরে দ্বিতীয় গিয়ার তারপরে দরকার পড়লে টপ গিয়ারে দাও। যদি গাড়িকে প্রথমেই পাঁচ নম্বর গিয়ারে শুরু করো তাহলে গাড়ির ইঞ্জিন খারাপ হয়ে যাবে। এই দিনের শুরুতে কমপক্ষে পাঁচ মিনিট তো নিজের জন্য বার করো যা শুধুমাত্র তোমার হবে। খোলা বাতাসে পাঁচ মিনিটের জন্য দীর্ঘ নিঃশ্বাস নাও এর থেকে ভাল মেডিটেশন আর কিছু্ই হতে পারে না। মোবাইলকে নিজের সাথে রেখে ঘুমা বন্ধ করো। যদি এলার্ম লাগাতেই হয় তাহলে একটা ঘড়ি কিনে নাও। সকালে উঠে নোটিফিকেশন চেক করার অসুখটা তুমি লাগিয়ে নিয়েছো এটা তোমাকে ভাবতেই দিবে না যে গোটা দিনে তোমাকে কি কি করতে হবে। কোন নোটিফিকেশন তোমার দিনের শুরুর থেকে গুরুত্বপূর্ণ হতেই পারে না। যদি তুমি তোমার নোটিফিকেশন চেক না করো তাহলে এই দুনিয়া চলা বন্ধ হবে না। সবার প্রথমে তোমার দিনের একটা প্রপার প্লানিং বানাও। তারপরেই মোবাইল চালাও। সকালে উঠে একবার  নিজেকে এই কথাটা অবশ্যই মনে করাও যে তুমি কি তোমার কাছে কি ক্ষমতা আছে আর তুমি লাইফে কি অর্জন করতে চাও। এই কথাটা চিৎকার মেরে অন্য কাউকে শুনানোর দরকার নেই শুধুমাত্র মনে মনে নিজেকে বলতে থাকো। যদি এই জিনিসটার অভ্যাস বানিয়ে নাও তাহলে কখনোই কনফিডেন্ট হবে না। কখনোই ফোকাস কম হবে না। কারণ এই সব কথাগুলো তোমার সাব কনসেস মাউন্ডে বসে যাবে। তোমার লাইফে যা কিছু ভালো হয়েছে সেটাকে মনে করো। তুমি লাইফে যা কিছু পেয়েছো তার জন্য এই ন্যাচারকে ধন্যবাদ জানাও। তোমার কাছে না ভালো হেল্প আছে না ভালো বন্ধু আছে। যেটা তোমাকে খুশি দেয় সেটাকে একবার মনে করো। বিশ্বাস করো এমনটা করলে তোমার মনে কখনোই নেগেটিভিটি আসবে না। জীবনে তো ওঠানামা আসবেই ভাল এবং মন্দ দুটোই পরিস্থিতি আসে এবং চলে যায়। কিন্তু অনেক লোক সেই খারাপ জিনিসটাকে মনে করে কাঁদতে থাকে। তারা সারাজীবন কাঁদতেই থাকে। কিন্তু তুমি তাদের থেকে আলাদা এর জন্য সকালে সর্বদা ভালো জিনিসগুলোকে মনে করো। নিজেকে স্বপ্ন দেখাও। তুমি যেটা হতে চাও যেটাকে অর্জন করতে চাও কিছু সময়ের জন্য অনুভব কর যে তুমি সেটা হয়ে গেছো। তুমি সেই সবকিছু অর্জন করে ফেলেছো। এখন তুমি কেমন অনুভব করছো। তোমার এর পরের প্লানিং কি। এই পাঁচটি কাজ করার জন্য তোমার দশ মিনিটের বেশি লাগবে না। যদি তুমি ভাবো যে এই সব করার জন্য তোমার টাইম নেই তাহলে তুমি এটা জানো না তুমি অনেক ফালতু সময় নষ্ট করে ফেলো। যদি তোমার ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিজের জন্য দশ মিনিটে না থাকে তাহলে তুমি গুগল এর seo এর থেকে বেশি ব্যস্ত মানুষ। আমাকে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবে তোমার জীবনের লক্ষ কি? ‍আলোচনাটি ভালো লেগে থাকলে অনেক অনেক শেয়ার করবে। তোমাদের এই সুন্দর সুন্দর কমেন্ট আমাদেরকে নতুন আলোচনা বানাতে মোটিভেট করে ও সব সময়ি বিনাপানির সঙ্গে যুক্ত থাকো।

COMMENTS

  • <cite class="fn">md easin ali</cite>

    বিষয়টি অত্যান্ত জরুরী, যার মাধ্যমে মানুষ সঠিক দিশা পাইতে পারে, বিষয়টি সবার জানার দরকার ধন্যবাদ আপনাকে এমন পোষ্ট করার জন্য,,,

Leave a Comment