সবার চোখে হিরো হয়ে যাবেন বিদায় অনুষ্ঠানে শুধু এই কথাগুলো বলুন

বিদায় অনুষ্ঠানে শুধু এই কথাগুলো বলুন, সবার চোখে হিরো হয়ে যাবেন 

হাই গাইস ওয়েলকাম ব্যাক। বন্ধুরা! জানুয়ারী মাস পড়ে গেছে। অলরেডি বিভিন্ন স্কুলে বিদায় অনুষ্ঠান বা বিভিন্ন অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। তো অনেকেই আমাকে রিকোয়েস্ট করেছিল যে ভাই বিদায় অনুষ্ঠানের ভাষণ সম্পর্কে কিছু একটা লিখুন। এজন্য আজকের আলোচনাতে আমি আপনাদের একটা বিদায়ী ভাষণ বা বক্তৃতা শেখাবো, যেটা এতোটা সুন্দর আর এতটা আকর্ষণীয় যে যদি আপনি এই ভাষণটি মঞ্চে উঠে দিতে পারেন তাহলে আমি ১০০% গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি যে, প্রত্যেকটা ছেলে মেয়ে শিক্ষক এবং যারা যারা আপনার সামনে থাকবে তাদের সবার মনে আপনি সারাজীবনের জন্য গেতে যাবেন। স্কুল কর্তৃক আয়োজিত এস এস সি পরীক্ষার্থী ২০২০ সাল। বিদায় অনুষ্ঠানের মঞ্চে উপবিষ্ট সভাপতি, শিক্ষক, অভিভাবক, সামনে উপস্থিত অগ্রজ অনুজ সকলের প্রতি রইল আমার আন্তরিক সালাম আসসালামু আলাইকুম। যেতে হবে বহুদূর, তাই এই ছেঁড়া বাঁধন। বিরহ ব্যাথাতুর মনে, বয়ছে হাসি আর কাঁদন। আজ ছেড়ে চলেছি, সকল মায়া সুশাসন। সমুখে দাঁড়ায়েছি দিতে, তাই বিদায়ী ভাষণ। সম্মানিত একান্ত অভিভাবক: আপনাদের একান্ত পরিচর্যায় বেড়ে ওঠা এক বাগান ফুল গাছ আমরা। আপনাদের স্নেহ, কোমল আচরণ পেয়ে আমরা ধন্য। সদ্য অঙ্কুরোদগম চারাকে আপনারা দীর্ঘদিন বিরামহীন ভাবে সেবা যত্ন করে আজকে সুন্দর করে তুলেছেন। এই জন্য থাকবে আজন্ম কৃতজ্ঞতা। সম্মানিত শিক্ষাগুরু: শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে আপনারা ছিলেন শেল্পিক। আপনাদের পাঠদান আমাদের মাঝে মুগ্ধতা ছড়িয়েছে প্রতিনিয়ত। সহজ, সরল, সাবলীলভাবে বোঝানোর চেষ্টা ছিল আপনাদের। বরং আপনাদের অনেক কিছু না বুঝে আমরা বিরক্ত অনুভব করেছি। আপনাদের বিরক্ত হতে দেখিনি কখনো। আজ বুঝতে পারছি একজন মালি কতটা আঘাত সহ্য করে একটা ভালো গোলাপ চারা উৎপাদন করে। আর একজন তা করে শুধু সমাজে ভালো কিছু উপহার দেয়ার জন্য। আজ আমার সকল সম্মানিত শিক্ষকদের কাছে আমাদের বিরক্তিপূর্ণ আচারণের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। সম্মানিত অভিভাবক: আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রথমত এই যে, আপনারা এমন সুন্দর একটা প্রতিষ্ঠানে আমাদেরকে পড়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। শেখার জগতে জ্ঞানী গুণী মানুষদের সাথে মেশার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। আমরা নিজ নিজ অভিভাবককে হারিয়ে পেয়েছিলাম আরো ভালো কিছু কর্তা। আপনাদের মনের ইচ্ছা গুলো যেন আমরা পরিস্ফুটিত করতে পারি আমাদের এখন এই কামনা। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া রাখবেন। প্রিয় সহপাঠী: অচেনা কতগুলো মুখকে কোথা থেকে একত্র হয়ে ছিলাম জানতাম না। আজ মনে হচ্ছে একটা গোষ্ঠীকে কি একটা বিদায় শব্দ গাঁটছাড়া করছে। প্রচলিত একটা গানের কয়েক লাইন মনের ভেতরটায় গুনগুন করছে। কেন বাড়লে বয়স, ছোট্ট বেলার বন্ধু হারিয়ে যায়। হারাচ্ছে সব, বাড়াচ্ছে ভীড়, হারানোর তালিকায়। না এই হারিয়ে যাওয়ার কোন মানা নেই। এই হারিয়ে যাওয়া যে সকলের গন্তব্যে ছুটে চলা মাত্র। তাই তো আমি বিদায় শব্দটা ব্যবহার করতে চাইছি না। তবুও আজ যখন আমরা এক শব্দের কাছে বন্দী হয়ে গেছি। তখন বলতে হয়। যেতে নাহি দিব হয়, তবু যেতে দিতে হয়, তবু চলে যায়। প্রিয় অগ্রজ: যারা আমাদেরকে সারাক্ষণ সঠিক পথ প্রদর্শনের দায়িত্ব পালন করেছে তাদের প্রতি থাকলো চির দায়বদ্ধতা। অনেক সময় না বুঝে ভুল করেছি আমরা। আসলে আপনারা ছিলেন আমাদের আলোকবর্তিকা। স্নেহ-ভালোবাসার প্রকৃত উদাহরণ। আপনাদের সুশাসন মনে পড়বে বারবার। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া রাখবেন, যেন আমরাও আপনাদের মত উদ্দেশ্যের স্বর্ণশিখরে উঠতে পারি। স্নেহের অনুজ: কি কথা বলিব আজ তোমাতে ভুলে গেছি সব কথা বিরহ বিষাদে। তোমাদের ছেড়ে যেতে হবে এমন ভাবনায় কখনো জীবন তরী জলে নিমজ্জিত করিনি। ভেবেছিলাম সৈয়দ শামসুল হকের মত, একসাথে আছি, একসাথে বাঁচি, আজো একসাথে থাকবোই। সব বিভেদের রেখা মুছে দিয়ে সাম্যের ছবি আঁকবই। আজ অপূর্ণ থেকে গেল সেই ইচ্ছাটি। সাম্যের ছবি আঁকার নয়, একসাথে থাকার ইচ্ছা। চলার ‍পথে দীর্ঘ পথচলা যখন তখন তো ছোট খাটো ভুল ত্রুটি বিভেদ থাকতেই পারে। আজ সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে তোমাদের নিকট ক্ষমার হাত বাড়িয়ে দিলাম। আর তোমাদেরকেও ক্ষমা করে দিলাম। যদিও ছোটদের ভুল বলে কিছু নেই বা থাকেনা। শ্রদ্ধেয় শিক্ষক, অভিভাবক, ছোট বড় ভাই বোন বন্ধুরা প্রিয় শিক্ষার্থী সকলের নিকট আমরা আপনাদের ভুল ত্রুটির জন্য ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। আগামী দিনের সাফল্যে জন্য দোয়া প্রার্থী আমরা। আমরা যেন আশানুরূপ ফলাফল অর্জন করতে পারি। প্রিয় মানুষদের ইচ্ছেগুলো পূরণ করতে পারি। সর্বোপরি দেশও দশের জন্য নিজেকে নিয়োজিত করতে পারি। সকলকে জানাই আমার বিদায়ী সালাম আসসালামুআলাইকুম। সো গাইস এই ছিল বিদায়ী ভাষণ। তো আপনি যদি এটা ইউজ করতে চান তাহলে আপনার প্রতিষ্ঠানের নাম ইউজ করে নিবেন কেমন। আর যারা শুধু এস এস সি পরীক্ষার্থী তাদের জন্য না আপনি এটি যেকোন জায়গায় ইউজ করতে পারেন শুধু পরিবেশ পরিস্থিতি বুঝে আপনাকে কিছু শব্দ চেঞ্জ করতে হবে। আর এখানে আমি সালাম দিয়েছি আপনি যে ধর্মের সেই ধর্মেরটা ইউজ করবেন। তো সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন নিজের খেয়াল রাখবেন গুড বাই। 

Leave a Comment