সমালােচনার ভয়ের লক্ষণ!

সমালােচনার ভয়ের লক্ষণঃ-

এ ভয়টি দারিদ্র্যের ভয়ের মতােই সার্বজনীন এবং এর প্রভাব ব্যক্তিগত অর্জনের মতােই ভয়াবহ কারণ এই ভয় ধ্বংস করে দেয় উদ্যম, কল্পনা শক্তির ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করে তােলে।

এ ভয়ের মূল লক্ষণগুলাে হলােঃ-
সচেতনতা:
অচেনা লােকদের সঙ্গে কথা বলার সময় সমালােচনার ভয়ে ভীত মানুষজন নাভাস হয়ে থাকে, অদ্ভুত ভঙ্গিতে হাত পা নাড়ে, চোখ নাড়াচড়া করে ।
ভারসাম্যতার অভাব : কথা বলার সময় গলা কাপে, এদের স্মৃতি শক্তি দুর্বল। থাকে।
ব্যক্তিত্ব : সমালােচনার ভয়ে ভীত লােক সুদৃঢ়ভাবে কোনাে সিদ্ধান্ত গ্রহণ। করতে পারে না, তাদের মধ্যে ব্যক্তিগত কোনাে চার্ম বা আকর্ষণ থাকে না, যে কোনাে বিষয় মুখােমুখি হওয়ার চেয়ে ওগুলাে পাশ কাটিয়ে যেতে চায় । অন্যদের মতামত ভালাে করে না শুনেই তাদের সঙ্গে একমত পােষণ করে।
হীনমন্যতা : এ ধরনের মানুষ হীনমন্যতায় ভােগে বড় বড় বুলি কপচিয়ে অন্যদেরকে মুগ্ধ করার ব্যর্থ চেষ্টা করে। অনেক সময় এরা জানেই না যে এরা কী বলছে। অন্যদের পােশাক, কথা বলার ঢঙ, আচার-আচরণ ইত্যাদি নকল করে । কাল্পনিক অর্জন নিয়ে গর্ব করে । এভাবে মাঝে মাঝে তারা ওপরে ওপরে। একটু সুপরিওরিটি ভাব দেখায়।
অপচয় : সমালােচনার ভয়ে ভীত মানুষ অসংযমী এবং অপচয়কারী হয়ে। থাকে।
উদ্যমের অভাব : এরা সুযােগ পেলেও তা হারায়, নিজেদের মতামত ব্যক্ত করতে কুণ্ঠাবােধ করে, নিজের আইডিয়ার বিষয়ে কোনাে আত্মবিশ্বাসই থাকে না, সুপিরিয়র কোনাে প্রশ্ন করলে তা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা থাকে, তাদের আচারআচরণ এবং কথা বলায় সর্বদাই আড়ষ্ট ভাব লক্ষ্যণীয়, কাজে-কর্মে কোনাে মিল নেই এবং শঠতা ও প্রবঞ্চনার আশ্রয় নেয় ।

উচ্চাকাঙ্ক্ষার অভাব : সমালােচনার ভয়ে ভীতদের থাকে মানসিক শারীরিক আলস্য, থাকে স্বাধিকারের অভাব, সিদ্ধান্ত গ্রহণে ধীরগতি সহজেই অপরের দ্বারা প্রভাবিত, অন্যদের পেছনে সমালােচনা করে ” সামনাসামনি হলে তােষামােদ করে, কোনােরকম প্রতিবাদ বা আপত্তি চা মেনে নেয় পরাজয়, কেউ বিরােধিতা করলে উদযােগ থেকে সরে যায় কোন কারণ ছাড়াই অন্যদেরকে সন্দেহের চোখে দেখে, কৌশলীভাবে কথা বলতে জানে , সেভাবে চলাফেরাও করতে পারে না এবং ভুল হলে তার দোষ স্বীকারও করে না।

Leave a Comment